ঢাকা ০২:২৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
ডিএমপির ৬ কর্মকর্তার বদলি কালিয়াকৈরে পালিত হলো প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী-২০২৪ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী মেলা অনুষ্ঠিত রায়পুরে আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত সেভ দ্য রোডের ১৫ দিনব্যাপী সচেতনতা ক্যাম্পেইন সমাপ্ত জামালপুরে কৃষককূল লাউ চাষে স্বাবম্বিতা অর্জন করেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অস্ত্রাগারের ভিডিও সম্প্রচার এক পুলিশ সুপারকে বাধ্যতামূলক অবসর মাদক কারবার-মানি লন্ডারিংয়ে বদির দুই ভাইয়ের সংশ্লিষ্টতা মিলেছে ঠাকুরগাঁওয়ে চেতনা নাশক স্প্রে ব্যবহার করে চুরি এলাকায় আতঙ্ক পরিবারের সংবাদ সম্মেলন মামলা সুষ্ঠু তদন্তের দাবি কলেজ ছাত্রকে মাদক মামলায় ফাঁসানোর দাবি

আবু ত্ব-হা কোথায়? জোরদার সন্ধান দাবি প্রধানমন্ত্রীর কাছে ।

সময়ের কন্ঠ রিপোর্টার।।
রাজধানীর গাবতলী এলাকা থেকে গত বৃহস্পতিবার (১০ জুন) ইসলামি বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান নিখোঁজ হন বলে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়। নিখোঁজ হওয়ার পর তার স্ত্রী এবং মা রংপুর ও ঢাকায় এ বিষয়ে পুলিশকে লিখিত অভিযোগ করেন।
নিখোঁজের ছয় দিন পরেও আবু ত্ব-হার কোনো হদিস বা সন্ধান দিতে পারেনি পুলিশ। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ও রংপুর জেলা পুলিশ বলছে, তারা কাজ করে যাচ্ছেন। কিন্তু আবু ত্ব-হা ঠিক কোথা থেকে নিখোঁজ হয়েছেন তা এখনও নিশ্চিত নয় পুলিশ।
এদিকে আবু ত্ব-হার সন্ধান দাবিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ তৎপরতা চলছে। নেটিজেনরা বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের ফেসবুক পেইজের নিচে মন্তব্য করছেন ধারাবাহিকভাবে। নানাভাবেই চোখে পড়ছে নেটিজেনদের দাবি। ত্ব-হার মুক্তি চেয়ে অনেক সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদেরও ফেসবুকে পোস্ট দিতে দেখা গেছে। এছাড়া রংপুরের সন্ধান দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন স্থানীয়রা।
আবু ত্ব-হার সঙ্গে নিখোঁজরা হলেন আব্দুল মুহিত, মোহাম্মদ ফিরোজ ও গাড়িচালক আমির উদ্দীন ফয়েজ। এদিকে, স্বামীকে ফিরে পেতে আবু ত্ব-হার স্ত্রী সাবেকুন নাহার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে খোলা চিঠি দিয়েছেন।
চিঠিতে সাবেকুন নাহার প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে বলেন, আমরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। কারো সহযোগিতা না পেয়ে আপনার (প্রধানমন্ত্রী) বরাবর শেষ আশ্রয় প্রার্থনা করছি। আপনাকে মা ও আমার অভিভাবক মেনে আমার দুহাত জোড় করে। আমার স্বামী নিখোঁজ আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানকে ফিরে পাওয়ার আকুতি জানাচ্ছি। আবু ত্ব-হা কোনো অপরাধ করে থাকলে তাকে আইনের কাছে সোপর্দ করা হোক। এছাড়াও মঙ্গলবার (১৫ জুন) সাবেকুন নাহার স্বামীকে ফিরে পেতে পুলিশ মহাপরিদর্শক ও র‌্যাবের মহাপরিচালক বরাবরও দুটি চিঠি দেন। এ বিষয়ে সাবেকুন নাহার জানান, আমার স্বামী নিখোঁজ হওয়ার পর রংপুর থানায় শাশুড়ি দুটি জিডি করেন। গত সোমবার (১৪ জুন) পল্লবী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করি। কিন্তু আজ ছয় দিন হয়ে গেল আমার স্বামীর কোনো খোঁজ নেই। সে যদি কোনো অন্যায় করে থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হোক। কিন্তু তার খোঁজ কেন আমরা পাব না।লিখিত অভিযোগের বিষয়ে পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পারভেজ ইসলাম বলেন, আবু ত্ব-হার স্ত্রীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে এ বিষয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। তার বিষয়ে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। তবে আবু ত্ব-হা কোথা থেকে নিখোঁজ তা আমরা নিশ্চিত নই। তিনি ঢাকা থেকে না অন্য কোথাও থেকে নিখোঁজ হয়েছেন তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। আমরা এ বিষয়ে কাজ করে যাচ্ছি।বৃহস্পতিবার রংপুর থেকে ঢাকায় ফেরার পথে গাবতলী থেকে আবু ত্ব-হা ও তার সঙ্গীরা নিখোঁজ হয় বলে অভিযোগ। আবু ত্ব-হার সঙ্গে তাঁর স্ত্রীর সর্বশেষ যোগাযোগ হয় গাবতলী থেকে, রাত ২টা ৩৬ মিনিটে। এরপর থেকে তাদের সবার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এখন পর্যন্ত তাদের অবস্থান সম্পর্কে কোনো তথ্য জানা যায়নি। ওসি পল্লাবী বলেন, নিখোঁজের পরদিন শুক্রবার আবু ত্ব-হার স্ত্রী দারুস সালাম থানায় লিখিত অভিযোগ করতে গেলেও তা গ্রহণ করা হয়নি। জানা গেছে, রংপুর সদরের বাসিন্দা আবু ত্ব-হা নিজেকে ইসলামী স্কলার (পণ্ডিত) হিসেবে পরিচয় দেন। পড়াশোনা শেষ না হলেও তিনি ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন, যা নিয়ে বিভিন্ন মহলে বিতর্ক রয়েছে।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

ডিএমপির ৬ কর্মকর্তার বদলি

আবু ত্ব-হা কোথায়? জোরদার সন্ধান দাবি প্রধানমন্ত্রীর কাছে ।

আপডেট টাইম : ১০:৪৩:২৪ পূর্বাহ্ণ, বুধবার, ১৬ জুন ২০২১

সময়ের কন্ঠ রিপোর্টার।।
রাজধানীর গাবতলী এলাকা থেকে গত বৃহস্পতিবার (১০ জুন) ইসলামি বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান নিখোঁজ হন বলে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়। নিখোঁজ হওয়ার পর তার স্ত্রী এবং মা রংপুর ও ঢাকায় এ বিষয়ে পুলিশকে লিখিত অভিযোগ করেন।
নিখোঁজের ছয় দিন পরেও আবু ত্ব-হার কোনো হদিস বা সন্ধান দিতে পারেনি পুলিশ। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ও রংপুর জেলা পুলিশ বলছে, তারা কাজ করে যাচ্ছেন। কিন্তু আবু ত্ব-হা ঠিক কোথা থেকে নিখোঁজ হয়েছেন তা এখনও নিশ্চিত নয় পুলিশ।
এদিকে আবু ত্ব-হার সন্ধান দাবিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ তৎপরতা চলছে। নেটিজেনরা বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের ফেসবুক পেইজের নিচে মন্তব্য করছেন ধারাবাহিকভাবে। নানাভাবেই চোখে পড়ছে নেটিজেনদের দাবি। ত্ব-হার মুক্তি চেয়ে অনেক সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদেরও ফেসবুকে পোস্ট দিতে দেখা গেছে। এছাড়া রংপুরের সন্ধান দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন স্থানীয়রা।
আবু ত্ব-হার সঙ্গে নিখোঁজরা হলেন আব্দুল মুহিত, মোহাম্মদ ফিরোজ ও গাড়িচালক আমির উদ্দীন ফয়েজ। এদিকে, স্বামীকে ফিরে পেতে আবু ত্ব-হার স্ত্রী সাবেকুন নাহার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে খোলা চিঠি দিয়েছেন।
চিঠিতে সাবেকুন নাহার প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে বলেন, আমরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। কারো সহযোগিতা না পেয়ে আপনার (প্রধানমন্ত্রী) বরাবর শেষ আশ্রয় প্রার্থনা করছি। আপনাকে মা ও আমার অভিভাবক মেনে আমার দুহাত জোড় করে। আমার স্বামী নিখোঁজ আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানকে ফিরে পাওয়ার আকুতি জানাচ্ছি। আবু ত্ব-হা কোনো অপরাধ করে থাকলে তাকে আইনের কাছে সোপর্দ করা হোক। এছাড়াও মঙ্গলবার (১৫ জুন) সাবেকুন নাহার স্বামীকে ফিরে পেতে পুলিশ মহাপরিদর্শক ও র‌্যাবের মহাপরিচালক বরাবরও দুটি চিঠি দেন। এ বিষয়ে সাবেকুন নাহার জানান, আমার স্বামী নিখোঁজ হওয়ার পর রংপুর থানায় শাশুড়ি দুটি জিডি করেন। গত সোমবার (১৪ জুন) পল্লবী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করি। কিন্তু আজ ছয় দিন হয়ে গেল আমার স্বামীর কোনো খোঁজ নেই। সে যদি কোনো অন্যায় করে থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হোক। কিন্তু তার খোঁজ কেন আমরা পাব না।লিখিত অভিযোগের বিষয়ে পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পারভেজ ইসলাম বলেন, আবু ত্ব-হার স্ত্রীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে এ বিষয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। তার বিষয়ে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। তবে আবু ত্ব-হা কোথা থেকে নিখোঁজ তা আমরা নিশ্চিত নই। তিনি ঢাকা থেকে না অন্য কোথাও থেকে নিখোঁজ হয়েছেন তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। আমরা এ বিষয়ে কাজ করে যাচ্ছি।বৃহস্পতিবার রংপুর থেকে ঢাকায় ফেরার পথে গাবতলী থেকে আবু ত্ব-হা ও তার সঙ্গীরা নিখোঁজ হয় বলে অভিযোগ। আবু ত্ব-হার সঙ্গে তাঁর স্ত্রীর সর্বশেষ যোগাযোগ হয় গাবতলী থেকে, রাত ২টা ৩৬ মিনিটে। এরপর থেকে তাদের সবার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এখন পর্যন্ত তাদের অবস্থান সম্পর্কে কোনো তথ্য জানা যায়নি। ওসি পল্লাবী বলেন, নিখোঁজের পরদিন শুক্রবার আবু ত্ব-হার স্ত্রী দারুস সালাম থানায় লিখিত অভিযোগ করতে গেলেও তা গ্রহণ করা হয়নি। জানা গেছে, রংপুর সদরের বাসিন্দা আবু ত্ব-হা নিজেকে ইসলামী স্কলার (পণ্ডিত) হিসেবে পরিচয় দেন। পড়াশোনা শেষ না হলেও তিনি ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন, যা নিয়ে বিভিন্ন মহলে বিতর্ক রয়েছে।